স্টাফ রিপোর্টার:

বগুড়ার কাহালুতে স্বেচ্ছাসেবকলীগের কমিটি গঠন নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ ও শর্টগানের ১৫ রাউন্ড গুলি ছুড়েছে। এসময় পুলিশসহ বেশ কয়েকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় কাহালু উপজেলা সদরের পৌর মঞ্চে এঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, কাহালু উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলন শনিবার বেলা তিনটা কাহালু পৌর মঞ্চে শুরু হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু। এছাড়াও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতৃবৃন্দ সম্মেলনে অতিথি ছিলেন। বিকেল সাড়ে ৫টায় সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শেষ হয়। এরপর দ্বিত্বীয় অধিবেশনে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের কমিটি গঠনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছিল। কমিটি ঘোষনার আগেই পদ পদবী নিয়ে শুরু হয় হট্টগোল। এক পর্যায় তা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় রুপ নেয়।

এসময় মঞ্চের চেয়ার ভাঙচুর থেকে শুরু করে একে অপরের প্রতি রেল লাইনের পাথর নিক্ষেপ শুরু করে। এমন পরিস্থিতিতে পুলিশ প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিদেরকে পৌরসভা কার্যালয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যান। এরপর দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া থামাতে প্রথমে লাঠিচার্জ উপরে শর্টগানের গুলি ছুড়ে দুইপক্ষের নেতাকর্মীদেরকে ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

কাহালু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়া লতিফুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ শর্টগানের ১৫ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এসময় দায়িত্ব পালন কালে রেল লাইনের পাথরের আঘাতে সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মাসুদ রানা আহত হয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here