গাবতলিতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মারপিটে ঈমামসহ আহত ৬

0
251

স্টাফ রিপোর্টার

বগুড়ার গাবতলিতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফের রাতের আঁধারে হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় মসজিদের ঈমামসহ কমপক্ষে ৮ জন গুরুতর আহত হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গাবতলী উপজেলার রামেশ্বরপুর চকমাল্লা পূর্ব পাড়া এলাকায়।

থানার মামলাসূত্রে জানাগেছে, তারাবীহ নামায শেষে ওই এলাকার মসজিদের ঈমাম আঃ হামিদ সরদার বাড়িতে ফিরছিলেন। এসময় তাঁর বাড়িতে হামলা চলাকালিন তিনি কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই তার ওপরে হামলা চালায়।

তার ছেলে সুমন (২২) এর সাথে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই এলাকার খলিলের ছেলে মোস্তা, মৃত একরাম আলীর ছেলে শহিদুল ইসলাম, মোকছেদ আলীর ছেলে নুর নবী, বাবুর ছেলে হাসান আলী, আনিছারের ছেলে আরিফুল, দুলালের ছেলে মেহেদি, মুকুল, ফজলু, শাহ আলম, ওমর সানি, মন্তেজার, এনামুল, রেজাউল, রায়হান, সুজন, জোবায়েদসহ বেশ কিছু আসামি দেশিয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় সুমনের বাবাকে বেদম মারপিট করতে থাকে আসামিরা।

সুমনের বাবার চিৎকারে, তাঁর দাদা, লয়া মিয়া, চাচাতো ভাই জিহাদ, চাচাতো ভাই মাসুদ এগিয়ে আসলে তাঁদেরকে এলোপাতাড়ি রামদা, হাসুয়া, সুরকি দিয়ে গুরুতর জখম করে। এ ঘটনায় ফরিদ উদ্দিন, ফটু মিয়া, আতিকুল, পিন্টুসহ অনেকেই আহত হয়।

রক্তাক্ত জখম অবস্থায় প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে সুমনের দাদা লয়া মিয়া, আর চাচাতো ভাই জিহাদকে শজিমেক হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করায়। আহত সুমনের বাবা ঈমাম সাহেব, মাসুদ, আতিকুলকে গাবতলি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করায়।

ওই আসামীরা ঘরবাড়ি ভাংচুর চালানোর পাশাপাশি লাখ টাকার ক্ষতি সাধান করে।

এ ঘটনায় আঃ হামিদ এর ছেলে সুমন বাদি হয়ে বুধবার গাবতলি থানায় মামলা দায়ের করে।

গাবতলি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়া লতিফুল ইসলাম দৃষ্টি ২৪ ডটকমকে বলেন, ঘটনাস্থলে আমি রাতেই গিয়েছিলাম। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here