চলাচলে ভোগান্তির সড়ককে চলাচলযোগ্য করে তুললেন যু্বলীগ নেতা ইনোকী

0
133

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:

শাজাহানপুর উপজেলার জামাদার পুকুর-গাড়ীদহ হাইওয়ে লিংক সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়ক। সড়ক যোগাযোগের ক্ষেত্রে শেরপুর, শাজাহানপুর, নন্দীগ্রাম ও কাহালু উপজেলার লোকজন এ সড়কটি ব্যবহার করে থাকেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ দেড় বছর আগে সড়কটি সংস্কার করা হলেও বছর না পেরোতেই সড়কটির কয়েকটি অংশে কার্পেটিং উঠে যায়। এমনকি গভীর গর্তের সৃষ্টি হয়। ফলে যানবাহন ও পথচারিদের চলাচলে চরম দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়।

অবশেষে জনদুর্ভোগ লাঘবে গতকাল বুধবার বিকেলে গোহাইল স্কুল ও কলেজের সভাপতি যুবলীগ নেতা আলী ইমাম ইনোকীর ব্যক্তিগত অর্থায়নে স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে সড়কের পোয়ালগাছা, বেড়াগাড়ী ও চেচুঁয়াপাড়া এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামত করেন স্থানীয়রা। এতে ওই সড়কে চলাচলকারী যানবাহনের চালক ও পথচারিদের মাঝে কিছুটা স্ব:স্থি ফিরেছে।

পোয়ালগাছা গ্রামের বাসিন্দা আওয়ামীলীগ কর্মি তছলিম উদ্দিন জানিয়েছেন, সড়কটি সংস্কার কাজে নিম্নমানের সামগ্রি ব্যবহার করায় অল্প সময়েই তা নষ্ট হয়ে গেছে। সড়কটি সংস্কারকালে নিম্নমানের সামগ্রি ব্যবহার করতে নিষেধ করায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়ে তাকে হয়রানি করেছিল।

ইউপি সদস্য তাজনুর রহমান শাহিন জানিয়েছেন, প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে শত শত যানবাহন ও পথচারি চলাফেরা করেন। কিন্তু সড়কটির কয়েকটি জায়গায় কার্পেটিং উঠে গিয়ে গভীর গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় জনসাধারণের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। সড়কটি স্থানীয় উদ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে মেরামত করায় সাময়িক ভাবে চলাচলের সুযোগ হলো। জনস্বার্থে এর স্থায়ী সমাধান হওয়া দরকার। স্বেচ্ছাশ্রমে সড়ক মেরামতে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন পোয়ালগাছা মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামান, সাবেক মেম্বার সোহেল রানা, যুবলীগ নেতা জনি, কাওছার, শ্রমিকলীগ নেতা আব্দুর রহিম, সমাজ সেবক নজরুল ইসলাম তিতু, আরিফ, কাওছার, বাবু প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here