দৃষ্টি২৪ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস মহামারিতে কার্যত অচল হয়ে পড়েছে বিশ্ব। পুরনো বিভেদ ভুলে নতুন সম্পর্কে জড়াচ্ছে দেশগুলো। ইরানে সহায়তা পাঠিয়েছে আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দ্বী সংযুক্ত আরব আমিরাত। ইসরাইলে সহায়তা পাঠিয়েছে তুরস্ক। অনেক ভেঙে পড়া কূটনৈতিক সম্পর্ক মেরামতের সুযোগ এনে দিয়েছে প্রাণঘাতী করোনা। তার প্রভাব দেখা গেছে মার্কিন ও তুর্কি সম্পর্কের ক্ষেত্রেও। রাশিয়ার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতায় মার্কিন প্রশাসনের সঙ্গে তুর্কি সম্পর্কের ব্যাপক অবনতি ঘটেছে সাম্প্রতিক সময়ে। মঙ্গলবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে পাঠানো এক চিঠিতে ওই সম্পর্কের উন্নতির প্রত্যাশা করেছে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোগান।চিঠিতে তিনি প্রত্যাশা প্রকাশ করেছেন, করোনা সংকটকালে সহযোগিতা ও সংহতি বিবেচনায় মার্কিন কংগ্রেস দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্কের গুরুত্ব আরো গভীরভাবে বুঝতে পারবে।
বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ট্রাম্পের কাছে এরদোগানের চিঠিটি পৌঁছেছে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার। এদিন, ন্যাটো মিত্রদের করোনা মোকাবিলায় সহায়তা হিসেবে সুরক্ষা স্যুট, মাস্ক সহ নানা সরঞ্জাম পাঠিয়েছে তুরস্ক। বুধবার আংকারায় রাষ্ট্রপতির ভবন চিঠিটি প্রকাশ করেছে।
চিঠিতে এরদোগান লিখেছেন, আমি আশা করছি, এই মহামারির সময়ে আমরা যে সংহতি দেখিয়েছি, এর বিবেচনায় কংগ্রেস ও যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম ভবিষ্যতে আমাদের মধ্যকার সম্পর্কের কৌশগত গুরুত্ব আরো ভালো বুঝবে।
প্রসঙ্গত, রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনলে তুরস্কের উপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ার হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। করোনা মহামারির কারণে ওই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয় স্থগিত হয়ে আছে। ভাইরাসটি মোকাবিলায় জোর দিচ্ছে সকল দেশই। তুরস্কে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২ হাজার ৯৯২ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ১৪ হাজারের বেশি। রাশিয়ায় আক্রান্ত ও মৃত যথাক্রমে ৯৯ হাজার ৩৯৯ ও ৯৭২ জন। অন্যদিকে, পৃথিবীর মধ্যে করোনার প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে বেশি দেখা গেছে যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৫৮ হাজার ৩৫৫ জন। আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১০ লাখ ১২ হাজার ৫৮৩ জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here