ধুনটে অভাবের সংসারে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী নূরনবী

0
232

রাকিবুল ইসলাম, ধুনট (বগুড়া ):

বগুড়ার ধুনটে অভাবের সংসারে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী হয়েছেন নূরনবী মন্ডল (৩৩) নামের এক যুবক। সে উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের শিয়ালী গ্রামের ইউনুস আলী মন্ডলের ছেলে।

ক্যান্সারে আক্রান্ত শয্যাশায়ী নূরনবী মন্ডলের ছোট ভাই রাশেদ মিয়া জানায়, নুরনবী মন্ডল ভ্যান চালিয়ে জিবিকা নির্বাহ করতেন। তার বাবা ইউনুস আলী একজন প্রতিবন্ধি, তার বড় ভাই সামসুজ্জোহা মন্ডল সেও একজন প্রতিবন্ধি। তার ছোট বোন সোনাহাটা ফাযিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী কারিমা খাতুন (১৬) চলতি বছরে গত ২৬ আগষ্ট বুধবার সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসাধিন রয়েছে। ওই দিন কান্তনগর চরপাড়া এলাকায় রডবাহী ভটভটি ও সিএনজি মুখোমুখি ধাক্কা লাগায় কারিমা খাতুনের পায়ের ভিতর রড ঢুকে গুরুতর আহত হন। এখনও ওই শিক্ষার্থী চিকিৎসাধিন রয়েছে। এ পর্যন্ত কারিমার চিকিৎসায় ব্যায় হয়েছে ২ লক্ষ টাকা। অভাবের সংসারে বাবা ও বড় ছেলে প্রতিবন্ধী, ছোট বোন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে। তার মধ্যে গত প্রায় ২ মাস যাবৎ একই পরিবারের ছেলে নুরনবী ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী। বর্তমান আর্থিক অবস্থায় চিকিৎসা ও সংসার চালানো কারো পক্ষে সম্ভব না হওয়ায় দুঃশ্চিন্তার বোঝা নিয়ে নির্ঘুম রাত্রী পার করছে এই অসহায় পরিবার। নুরনবী মন্ডলের বিবাহিত জীবনে তাদের সংসারে দুই ছেলে ও এক মেয়ে। তারাও অনেক ছোট। শারিরিব পরীক্ষা করে নুরনবীর মাথায় ২টি টিউমার ধরা পরে। বর্তমানে টিউমার থেকে তার মাথায় ক্যান্সারে রূপ ধারন করেছে বলেও জানান আক্রান্ত ওই রোগির ছোট ভাই রাশেদ মিয়া। এক প্রশ্নে জবাবে সে বলেন আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ার কারনে বাড়িতেই নুরনবীকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। নুরনবী মন্ডলের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে নিমগাছী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম আবুল কাশেমের ছেলে খালেদ হোসেন সিজুসহ অনেকেই সহযোগিতার হাত বারিয়ে দিয়েছেন।

খলেদ হোসেন সিজু জানান, ডাক্তারের পরামর্শে গত ১৩, ১৪ ও ১৮ অক্টোবর পৃথক পৃথক ভাবে বগুড়ার ৩টি হস্পিটালে নুরনবীর শারিরীক পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষায় রিপোর্টে নুরনবীর মাথায় দুটি টিউমার ধরা পরেছে যা বর্তমানে ব্রেণ ক্যান্সারে রূপ নিয়েছে। বর্তমানে ডাক্তারের পরামর্শ মোতাবেক নিজ বাড়িতেই চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here