ধুনটে জমি নিয়ে তিন দফা সংঘর্ষে আহত ৬, গ্রেফতার ১

0
173
রাকিবুল ইসলাম, ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি
বগুড়ার ধুনটে জমি সংক্রান্ত জের ধরে ৩ দফা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ৬ জন আহত হয়েছে।
সোমবার (৪ জানুয়ারী) বিকেল সাড়ে ৩টায় উপজেলার সোনামুয়া হাট এলাকায় ও সাড়ে ৪টায় কান্তনগর বাজার এবং সন্ধ্যায় থানার পার্শ্বে প্রধান সড়কে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
সংঘর্ষে আহতরা হলো উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের সরুগ্রামের মৃত. জালাল সাকিদারের ছেলে লাল মিয়া ও মশিউর রহমান, মৃত মেছের আলী মন্ডলের ছেলে জাকারিয়া হোসেন নিদল, মৃত. ওমর আলী সাকিদারের ছেলে আব্দুল মাজেদ সাকিদার ও আব্দুস সালাম সাকিদার এবং সাহেব আলী সাকিদারের ছেলে মইনুল হাসান (দুলু মিয়া) সাকিদার।
জানা যায়, উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের সরুগ্রামের মৃত. ওমর আলী সাকিদারের ছেলে আব্দুল মাজেদ সাকিদার ও আব্দুস সালাম সাকিদারের সাথে একই গ্রামের মৃত. জালাল সাকিদারের ছেলে লাল মিয়া ও মশিউর রহমানের সাথে দির্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো।
তার জের ধরে সোমবার (৪জানুয়ারী) সকালে উভয় পক্ষের বাড়িতে কথা কাটাকাটি হয়। এরপর বিকাল সাড়ে ৩টায় কান্তনগর হাঁসখালী এলাকার সোনামুয়া হাটের নিকটে প্রধান সড়কের উপর বিরোধের জের ধরে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিকাল সাড়ে ৪টায় কান্তনগর তিনমাথা বাজারে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়।
সন্ধ্যায় উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করতে গেলে থানার পূর্ব পার্শ্বে প্রধান সড়কে আবারও দু গ্রুপের সংঘর্ষ হয়।
তিন দফা সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষের ৬জন আহত হয়।
আহতদের মধ্যে আব্দুল মাজেদ সাকিদার, আব্দুস সালাম সাকিদার, লাল মিয়া ও মশিউর রহমান বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অপর ২ জন মইনুল হাসান দুলু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে এবং জাকারিয়া হোসেন নিদল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা নিয়ে পরের দিন মঙ্গলবার সকালে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।
এঘটনায় লাল মিয়ার স্ত্রী মিলি খাতুন বাদী হয়ে ধুনট থানায় মামলা দায়ের করেছে।
এ বিষয়ে ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃপা সিন্ধু বালা জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী কামরুজ্জামান কে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার সকালে বগুড়া আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here