নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার কুসুম্বী গ্রাম থেকে নন্দীগ্রাম উপজেলার বীরপলি গ্রামে বাল্যবিয়ে করতে এসেছিলেন মাহবুবুর রহমান। ফেরার কথা ছিল নতুন বৌ নিয়ে। কিন্তু তাকে পালিয়ে যেতে হলো বৌ ছাড়াই।

ঘটনাটি ঘটেছে নন্দীগ্রাম উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের বীরপলি গ্রামে। এ ঘটনায় বর পালিয়ে গেলেও দুই বরযাত্রীর এক হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

শনিবার (১৮ এপ্রিল) সকালে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নূরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) রাতে উপজেলার বীরপলি গ্রামে ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরীর বাল্যবিয়ের আয়োজন চলছিল। এ খবর পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নূরুল ইসলাম পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বর পালিয়ে গেলেও ধরা পড়েন বরের দুই চাচা। পরে ভ্রাম্যমান আদালত দুই বরযাত্রীর এক হাজার টাকা জরিমানাসহ বাল্যবিয়ের আয়োজন বন্ধ করে দেন। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নূরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়। এবং দুই বরযাত্রীর জরিমানা করা হয়েছে। সেই সাথে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দেবে না মর্মে মুচলেকা দিয়েছেন মেয়ের বাবা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here