পুত্রের অনৈতিক বিয়ে ; পিতার আত্মহত্যা

0
366

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনা :

পাবনায় পুত্রের অনৈতিক বিয়ে মেনে নিতে না পেরে পিতা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। শনিবার ভোর রাতে জেলার ভাঙ্গুড়ায় উপজেলার পার-ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের মধ্য পাটুলিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ ও পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, পার-ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের মধ্য পাটুলিপাড়া গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে ফায়ার সার্ভিস কর্মী মিজানুর রহমান প্রথম স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন কে রেখে প্রায় পাঁচ মাস আগে নিজ গ্রামের ইয়াকুব আলীর মেয়ে জেসমিনের সাথে পরকিয়া প্রেম জরিয়ে পড়েন। এক পর্যায় দু’লক্ষ টাকার কাবিন নামায় তাকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। পরে আবার সাড়ে তিন লাখ টাকার বিনিময়ে তাদের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। কিন্তু তারা উভয়েই গোপনে তাদের সম্পর্ক অব্যাহত রাখেন।

বিষয়টি জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার মিজানুর রহমান আবার জেসমিনকে আট লাখ টাকা কাবিন দিয়ে পুনরায় বিয়ে করেন। এই সময়ের মধ্যে জেসমিনের অন্য কোথাও বিয়ে না হওয়ায় এটি শরিয়ত সম্মত নয় বলে পিতা মকবুল হোসেন পুত্র বধু হিসাবে তাকে মেনে নেননি। তিনি জেসমিনকে বাড়ি থেকেও চলে যাবার নির্দেশ দেন। কিন্তু পুত্র তার স্ত্রীকে বাড়িতেই রেখেছেন।

পুত্র পিতার আদেশ অমান্য করায় শনিবার ভোরে বাড়ির একটি আম গাছের সাথে গলায় দড়ি নিয়ে পিতা মকবুল হোসেন আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। প্রতিবেশি লোকজন ঘটনা টের পেয়ে গুরুতর অসুস্থ্য অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেল কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভাঙ্গুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাসুদ রানা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় ইউডি মামলা রুজু হয়েছে এবং লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here