ডেস্ক প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সরকার ঘোষিত ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় তৈরি পোশাকখাতের শ্রমিকরা এপ্রিল মাসের বেতন পেতে শুরু করেছেন। রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক কারখানার আবেদনের প্রেক্ষিতে ব্যাংকগুলো বেশ কয়েক দিন আগে থেকেই সহজ শর্তের এই ঋণ বিতরণ শুরু করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম জানান, বাণিজ্যিক ব্যাংকের চাহিদা অনুযায়ী কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রণোদনা প্যকেজের অর্থ ছাড় করেছে। আমরা প্রথম ধাপে ২ হাজার কোটি টাকা ছাড় করেছি। ব্যাংকগুলোর চাহিদা মোতাবেক এটি দেয়া হচ্ছে।

রপ্তানিমুখী পোশাক করাখানার শ্রমিকদের এপ্রিল, মে ও জুন মাসের বেতন-ভাতা পরিশোধের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার এই প্রনোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করে সরকার। সেটার কার্যক্রাম বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে।

রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর ভাইস প্রেসিডেন্ট ফয়সাল সামাদ বলেন, ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি কারখানার শ্রমিকরা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে বেতন পেয়ে গেছেন। বাকি কারখানাগুলো খুব শিগগিরই বেতন পরিশোধ করবে বলে তিনি জানান। এই বেতন মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমেই দেয়া হবে।

সূত্র জানায়, বিজিএমইএর মোট ২ হাজার ২৭৪ সদস্যের মধ্যে প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় ঋণের আবেদন করেছে ১ হাজার ৬১৫টি প্রতিষ্ঠান। তাদের সবাইকেই ঋণ আবেদনের সনদ প্রদান করেছে বিজিএমইএ।

অন্যদিকে বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) ২ হাজার ৬১৪ সদস্যের মধ্যে আবেদন করেছে ৮৩৩টি প্রতিষ্ঠান। তারাও ব্যাংকের কাছে ঋণ আবেদনের সনদ পেয়েছে। তথ্য অনুযায়ী প্রায় ১ হাজার পোশাক কারখানা তহবিলের জন্য আবেদন করতে সক্ষম নয়।

উৎপাদনের ন্যুনতম ৮০ শতাংশ পণ্য রপ্তানি করছে এমন সচল প্রতিষ্ঠান এই প্যাকেজের আওতায় সুদবিহীন সর্বোচ্চ ২ শতাংশ হারে সার্ভিস চার্জ দিয়ে ঋণ নিতে পারবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here