বগুড়ার সুধিজনেরা মেয়র প্রার্থী হিসেবে সমর্থণ দিল সিপারকে

0
1508

স্টাফ রিপোর্টার:

বগুড়ার সুধিজনেরা সিপার আল বখতিয়ারকে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে বগুড়া পৌর মেয়র প্রার্থী হিসেবে তাঁর পক্ষে সমর্থণ জানিয়েছে। পৌর এলাকার ২১টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার সুধিজনেরা মতবিনিময় সভায় তাদের সমর্থণ ব্যক্ত করেন। সোমবার বিকেলে শহরের টিএমএসএস মিলনায়তনে ‘‘আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী সিপার আল বখতিয়ারের পক্ষে সুধি সমাবেশ ও মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন, সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান। বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র সাংবাদিক মহসিন আলী রাজু, বিশিষ্ট্য চিকিৎসক এম.এ ওয়াহেদ শজিমেক হাসপাতাল বগুড়া, কাউন্সিলর খোরশেদ আলম ১৩ নং ওয়ার্ড, রফিকুল ইসলাম সহঃ অধ্যাপক শহিদ জিয়া কলেজ, কাজি সমিতি বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি মাহমুদুর রহমান (মামুন), জেলা গৃহ নির্মাণ শ্রমিক সভাপতি আলমগীর হোসেন, বিশিষ্ট্য ব্যবসায়ী সাইদুর রহমান, খ্রিষ্টান এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক পবিত্র প্রামাণিক, সংবাদ পত্র হকার্স ইউনিয়নের সভাপতি শফিকুল ইসলাম, আইনজিবী ফোরামের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আব্দুল মতিন, বগুড়া জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সিপার আল বখতিয়ার প্রমুখ। বক্তরা বলেন, সিপার আল বখতিয়ার একদিনে এতবড় নেতা তৈরী হয়নি। অনেক লড়াই সংগ্রাম করে জেল-খেটে মামলা-হামলার স্বীকার হয়েছে। আমরা যারা বিভিণœ দলের সমর্থক বা বিভিন্ন পেশার সাথে জড়িয়ে পড়েছি, আমরা দেখেছি, ১/১১ সময় সংস্কারপন্থী সিরাজ-বাদশা গংরা বেগম খালেদা জিয়াকে মাইনাস করতে চেয়েছিল, তারা ইমাম পাল্টানোর কথা বলেছিল। দলের দুঃসময়ে কর্মীদের পাশে ছিলনা। আজকে সেই সিরাজ-লালু গংরা বাদশাকে মেয়র প্রার্থী করতে চায়। কে এই বাদশা, কোথাকার বাদশা, কিসের বাদশা। বগুড়ার রাজপথে তাকে তো ১২ বছর দেখা যায়নি। সিপারকে দেখেছি আমরা, রাজপথে মিছিল করতে গিয়ে মামলা খেয়ে জেলে যাচ্ছে বার বার। দলের কর্মীরা গুলি খেয়ে জিবন দিল, পঙ্গু হলো কার জন্য। জেল খানায় সিপার যখন আবদ্ধ তখন তাঁর সন্তানদের চোখের দেখাও দেখতে পায়নি ্এই সিপার। কি নির্মমভাবে তাকে নির্যাতন করা হয়েছিল ১/১১ তে আপনারা অনেকেই স্বচোখে দেখেছেন। অথচ আজকে সিরাজ-লালু গংরা নোংরা রাজনীতি করে সিপার সহ ২৩জন নেতাকে বহিস্কার করা হলো। এটা অন্যায়-অবিচার আমরা সুধিজন তা প্রত্যাখ্যান করছি। অবিলম্বে সিপারসহ সকল নেতাকর্মীদেও বাহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার করার জন্য ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। আমরা সিপারের ত্যাগ আর তাঁর জনপ্রিয়তায় মুগ্ধ হয়ে তাকে আসন্ন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে সমর্থণ দিচ্ছি। মতবিনিময় সভায় ২১ টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ বক্তব্য রাখেন।
বগুড়ার সুধিজনেরা সিপারকে
মেয়র প্রার্থী হিসেবে সমর্থণ দিল
প্রেস রিলিজ ঃ বগুড়ার সুধিজনেরা সিপার আল বখতিয়ারকে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে বগুড়া পৌর মেয়র প্রার্থী হিসেবে তাঁর পক্ষে সমর্থণ জানিয়েছে। পৌর এলাকার ২১টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার সুধিজনেরা মতবিনিময় সভায় তাদের সমর্থণ ব্যক্ত করেন। সোমবার বিকেলে শহরের টিএমএসএস মিলনায়তনে ‘‘আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী সিপার আল বখতিয়ারের পক্ষে সুধি সমাবেশ ও মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন, সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান। বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র সাংবাদিক মহসিন আলী রাজু, বিশিষ্ট্য চিকিৎসক এম.এ ওয়াহেদ শজিমেক হাসপাতাল বগুড়া, কাউন্সিলর খোরশেদ আলম ১৩ নং ওয়ার্ড, রফিকুল ইসলাম সহঃ অধ্যাপক শহিদ জিয়া কলেজ, কাজি সমিতি বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি মাহমুদুর রহমান (মামুন), জেলা গৃহ নির্মাণ শ্রমিক সভাপতি আলমগীর হোসেন, বিশিষ্ট্য ব্যবসায়ী সাইদুর রহমান, খ্রিষ্টান এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক পবিত্র প্রামাণিক, সংবাদ পত্র হকার্স ইউনিয়নের সভাপতি শফিকুল ইসলাম, আইনজিবী ফোরামের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এড. আব্দুল মতিন, বগুড়া জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সিপার আল বখতিয়ার প্রমুখ। বক্তরা বলেন, সিপার আল বখতিয়ার একদিনে এতবড় নেতা তৈরী হয়নি। অনেক লড়াই সংগ্রাম করে জেল-খেটে মামলা-হামলার স্বীকার হয়েছে। আমরা যারা বিভিণœ দলের সমর্থক বা বিভিন্ন পেশার সাথে জড়িয়ে পড়েছি, আমরা দেখেছি, ১/১১ সময় সংস্কারপন্থী সিরাজ-বাদশা গংরা বেগম খালেদা জিয়াকে মাইনাস করতে চেয়েছিল, তারা ইমাম পাল্টানোর কথা বলেছিল। দলের দুঃসময়ে কর্মীদের পাশে ছিলনা। আজকে সেই সিরাজ-লালু গংরা বাদশাকে মেয়র প্রার্থী করতে চায়। কে এই বাদশা, কোথাকার বাদশা, কিসের বাদশা। বগুড়ার রাজপথে তাকে তো ১২ বছর দেখা যায়নি। সিপারকে দেখেছি আমরা, রাজপথে মিছিল করতে গিয়ে মামলা খেয়ে জেলে যাচ্ছে বার বার। দলের কর্মীরা গুলি খেয়ে জিবন দিল, পঙ্গু হলো কার জন্য। জেল খানায় সিপার যখন আবদ্ধ তখন তাঁর সন্তানদের চোখের দেখাও দেখতে পায়নি ্এই সিপার। কি নির্মমভাবে তাকে নির্যাতন করা হয়েছিল ১/১১ তে আপনারা অনেকেই স্বচোখে দেখেছেন। অথচ আজকে সিরাজ-লালু গংরা নোংরা রাজনীতি করে সিপার সহ ২৩জন নেতাকে বহিস্কার করা হলো। এটা অন্যায়-অবিচার আমরা সুধিজন তা প্রত্যাখ্যান করছি। অবিলম্বে সিপারসহ সকল নেতাকর্মীদেও বাহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার করার জন্য ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। আমরা সিপারের ত্যাগ আর তাঁর জনপ্রিয়তায় মুগ্ধ হয়ে তাকে আসন্ন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে সমর্থণ দিচ্ছি। মতবিনিময় সভায় ২১ টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ বক্তব্য রাখেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here