বগুড়া প্রতিনিধি:
বগুড়ায় নতুন করে এক শিশু এবং নারীসহ ৭জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বুধবার রাত ১০টার দিকে ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট ১২জন করোনায় আক্রান্ত হলেন।
পরে রাত ১টারদিকে উপজেলা প্রশাসন, শাজাহানপুর, বগুড়া কর্তৃক এ উপজেলাধীন আড়িয়া ইউনিয়নের বি-ব্লক মধ্যে পাড়ায় একজন ২৭ বছর বয়সী মহিলার করোনা ভাইরাস পজিটিভ হওয়ায় ১০টি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।
রাত প্রায় দেড়টা। সারিয়াকান্দিতে নতুন করে এক ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহি অফিসার ,স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাসহ নারচি গণকপাড়ায় গিয়ে কয়েকটি বাড়ি লকডাউন করেন। এ নিয়ে সারিয়াকান্দিতে ০৩ জন করোনা রোগি সনাক্ত হলো।

বুধবার রাত ১টার দিকে শাজাহানপুরের বি-ব্লক এলাকা লকডাউন করেন উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার রাতে যাদের করোনা পজিটিভি বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে নন্দীগ্রামের ১২ বছরের এক মেয়ে শিশু ও শাজাহানপুরের ২৭ বছরের এক নারী রয়েছেন। অন্য পাঁচজন পুরুষের মধ্যে বগুড়া শহরের সবুজবাগ এলাকার বাসিন্দার বয়স ৪০ বছর, সোনাতলা উপজেলার এক ব্যক্তির বয়স ৪৫ বছর, সারিয়াকান্দিতে যার বাড়ি তার বয়স ২৮ বছর, দুপচাঁচিয়ার ৬০ বছর বয়সী এবং ধুনটের ২২ বছরের এক ব্যক্তিও রয়েছেন।
এর আগে ২১ এপ্রিল রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের পরীক্ষায় বগুড়ার সারিয়াকান্দি ও সোনাতলার এক নারীসহ ৩জনের পজিটিভ আসে। তারও আগে আদমদীঘি উপজেলার বাসিন্দা দু’জনের করোনা পজিটিভ সনাক্ত হয়। করোনা সনাক্ত ওই ৫ ব্যক্তিকে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। প্রাণঘাতি করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি মোকাবেলায় এরই মধ্যে বগুড়াকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।
বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুস্তাফিজুর রহমান রহমান তুহিন জানান, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকল কলেজে ২১ এপ্রিল যে ৩টি নমুনার পরীক্ষা রিভিউ বা পুনর্বার করতে বলা হয়েছিল সেইগুলোও বুধবার পজিটিভ এসেছে। তিনি বলেন, ২০ এপ্রিল করোনা সনাক্তকরণ শুরু হওয়ার পর থেকে বুধবার পর্যন্ত মোট ৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭টি পজিটিভ এসেছে। বাকিগুলো নেগেটিভ। তিনি বলেন, যাদের করোনা পজিটিভ এসেছে তাদের ব্যাপারে স্বাস্থ্য বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here