বগুড়ায় সাবেক পুলিশ কর্মকর্তাসহ দুই পুত্রকে মারপিট ও ছুরিকাহত, আটক ২

0
330

বগুড়া প্রতিনিধি:

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বগুড়ায় পুলিশের সাবেক এক কর্মকর্তা ও তার দুই পুত্রকে বেদম মারপিট ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত করার খবর পাওয়া গেছে ।

এ ঘটনায় বাধঁন নামের এক কলেজ ছাত্রও আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া শহরের সেউজগাড়ি বাজার এলাকায় দূর্গা মন্দিরের পিছনে।

এ ঘটনায় পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে ২জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন সেউজগাড়ি আমতলা এলাকার মৃত রেজাউল করিমের পুত্র সাব্বির হোসেন ও তিনমাথা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এলাকার আতাবুল্লাহর পুত্র কোরবান আলী।

সরেজমিনে জানা যায়, পুলিশের সাবেক পরিদর্শক নাজমুল হক তার বড় ছেলে জাহিদুল হক ও ছোট ছেলে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা জাকিরুল হক সৈকত সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে তার নিজ বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিলেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে  প্রতিবেশি বাচ্চুর ছেলে কলেজ শিক্ষার্থী বাধঁনের সাথে পুর্বের জের ধরে মারধর করা অবস্থায় সাবেক ঐ পুলিশ কর্মকর্তা ও তার দুই ছেলে তাকে বাচাঁতে এগিয়ে আসলে তখন সন্ত্রাসীরা তাদের উপর ঝাপিয়ে পড়ে বেদম মারপিট করে ও তিনজনকে ছুরিকাঘাত করে। তখন তাদের চিৎকার চেচাঁমেচিতে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। তৎক্ষনাত প্রতিবেশিদের সহযোগিতায় আহতদেরকে উদ্ধার করে শজিমেকে ভর্তি করানো হয়।

পরে পুলিশ এসে অভিযান চালিয়ে ২ জনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন।

এঘটনায় ভুক্তভুগী পুলিশের সাবেক ঐ কর্মকর্তা জানান, আমি জোহর নামাজের জন্য ওযু করে বের হতেই চিৎকার চেচামেচি শুনে দৌড়ে যায় এবং বাধঁন ও আমার ২পুত্রকে মারধর না করার জন্য তাদেরকে অনুরোধ করি। তারপরও তারা আমার কোন কথায় কর্ণপাত না করে উল্টো লোহার রড দিয়ে আমাকে ও দুই ছেলে সহ পরিবারের মহিলা সদস্যেদেরকেও বেদম মারপিট করে আহত করেছে। আমি প্রশাসনের সাবেক কর্মকর্তা হিসেবে এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি।

স্টেডিয়াম ফাঁড়ির এস আই জাহাঙ্গীর ঘটনা সর্ম্পকে বলেন, সেইজগাড়ি এলাকায় মজনু নামের এক ছেলে একটি মেয়েকে বিয়ে করে সেখানে বসবাস করছেন। এলাকার কিছু যুবক ছেলেরা তাদের বিয়ের কাবিননামা দেখতে চাওয়াকে কেন্দ্র করে উক্ত ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছি। তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে সাব্বির ও কোরবান নামে ২জন কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে এসেছি। তদন্তপুর্বক পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবির ২জনকে আটকের কথা নিশ্চিত করে জানান , ঘটনার সুষ্ঠ তদন্তপুর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here