বগুড়ায় হাসপাতাল থেকে চিকিৎসাধীন দুই আসামির পালায়ন

0
145
বগুড়া প্রতিনিধি

বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুলিশী প্রহরায় চিকিৎসাধীন হত্যা চেষ্টা মামলার দুই আসামি পালিয়েছে। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পালাতক আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলে পুলিশ নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এই ঘটনাটি ঘটেছে।

পালাতক আসামিরা হলো জেলার গাবতলী উপজেলার ক্ষিদ্রপেরি গ্রামের বাবু মিয়ার ছেলে শাকিল (২০)। অপরজন একই এলাকার আমিন উদ্দিনের ছেলে মানিক (৩৫)। যাহার মামলা নং-১৩/২৭ গাকতলী থানা, বগুড়া।

স্থানীয় এবং মামলা সূত্রে জানাগেছে, গত শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) গাবতলী উপজেলার দাড়ইল বাজারে সুমন নামের এক যুবকের মোবাইল সাভিসং দোকানে দেশীয় অস্ত্র সজ্জিত হয়ে হানা দেয় শাকিল এবং এবং মানিক। কিছু বুঝে উঠার আগেই দোকনদার সুমনকে এলাপাথারি ভাবে রামদা এবং চাকু দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। এসময় সুমন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহতবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। অন্যদিকে শাকিল এবং মানিককে গনধোলাই দিয়ে রাতেই পুলিশে সোপার্দ করেন স্থানীয়রা।

মনিক এবং শাকিলের চিকাৎসার জন্য ওইদিন রাত সাড়ে ১২টার দিকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায় পুলিশ। যাহার ইউনিট নং-৩।

পরদিন রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) দুপুর সোয়া ২টার দিকে সুমনের বড় ভাই স্বপন বাদি হয়ে শাকিল এবং মানিককে আসামি করে গাবতলী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার নং- ১৩/১৭।

এরপর থেকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেেিকল কলেজ হাসপাতালে এসআই আলহাজ্ব উদ্দিনসহ তিনজন পুলিশ সদস্যের
পাহাড়ায় চিকিৎসা চলতে থাকে আসামি মানিক এবং শাকিলের। গত সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারী) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে পুলিশের চোখ ফাঁকি দেয় দুই আসামি পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ওই হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সেবিকা ইনচার্জ নাজমা আক্তার বলেন, মানিক এবং শাকিল দুইজনকে হ্যান্ডকাপ অবস্থায় পুলিশ সদস্যের পাহাড়ায় চিকিৎসা চলছিল। তাদের পালায়নের বিষয়টি হাসপাতালের উর্ধতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে।

এবিষয়ে গাবতলী মডেল থানার এসআই আলহাজ্ব উদ্দিন বলেন, এবিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

তবে গাবতলী থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) অঅনোয়ার হোসেনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আসামিদের গ্রেফতারের প্রস্তুতিকালে তারা পালিয়েছে। পুলিশ হেফাজত বা পুলিশ প্রহরায় আসামিরা ছিল না। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here