দৃষ্টি২৪ডেস্ক: বুধবার ২৪ ঘন্টায় ভারতে করোনা ভাইরাসে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৩৫৬১ জন মানুষ। এ সময়ে মারা গেছেন ৮৯ জন। সব মিলে আক্রান্তের সংখ্যা ৫২ হাজার ৯০০ ছাড়িয়ে গেছে। আর মৃতের মোট সংখ্যা ১৭৮৩। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে অনলাইন এনডিটিভি। এতে বলা হয়, সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত বা মৃতের সংখ্যা মুম্বই, দিল্লি ও আহমেদাবাদে। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ২৬৭ জন। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য মহারাষ্ট্র।

সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন কমপক্ষে ১৬ হাজার ৭৫৮ জন। এরপরে রয়েছে গুজরাট। সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৬২৫ জন এবং দিল্লিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৫৩২ জন। তবে পশ্চিমবঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কঠোর ভাষায় বুধবার চিঠি লিখেছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুহার সবচেয়ে বেশি। এখানে টেস্ট করা হচ্ছে কম। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বিরুদ্ধে যেসব স্বাস্থ্যকর্মী লড়াই করছেন তাদের ওপর হামলায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয় চিঠিতে।
বুধবার একদিনে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ঘটেছে দিøিতে। এদিন সেখানে সংক্রমিত হন ৪২৮ জন। মঙ্গলবার রাজধানী দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়ে যায়। বুধবার এ সংখ্যা দাঁড়ায় ৫৫৩২। গুজরাটের সুরাট হলো ডায়মন্ড আর বস্ত্রশিল্পের জন্য বিখ্যাত। সেখানে গত কয়েক সপ্তাহে শ্রমিকদের বিক্ষোভ হয়েছে কয়েকবার। তারা দাবি তুলেছেন, তাদেরকে স্ব স্ব রাজ্যে ফিরে যেতে দেয়া হোক। এ সময় শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিলশের সংঘর্ষও হযেছে। ওদিকে গুজরাট থেকে ট্রাকভর্তি হয়ে অবৈধভাবে শত শত শ্রমিককে মধ্যপ্রদেশে ফিরতে দেখা যায়। এর ফলে সেখানে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা আছে। এমনটা দেখা গেছে সোমবার। এদিন ওইসব ট্রাকের একটিকে সাতনায় সোহাওয়াল চৌকিতে থামিয়ে পরীক্ষা করে দেখা গেছে।
ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধার সিরিজ বৈঠক করে। বিদেশে আটকে পড়া হাজার হাজার ভারতীয়কে উদ্ধারের পরিকল্পনা ও ব্যবস্তাপনা নিযে এতে আলোচনা হয়। পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা ভিডিও কনফারেন্স করেন বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যসচিবদের সঙ্গে। ‘বন্দে ভারত মিশন’ পরিচালনায় তিনি তাদের যথাযথ সহযোগিতা কামনা করেন। আজ থেকে এই মিশন শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। এ অবস্থায় বেসামরিক বিমান চলাচল বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বুধবার হুমড়ি খেয়ে পড়েন বিদেশে অবস্থানরত ভারতীয়রা। এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হরদীপ পুরিকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, দুই লাখ ভারতীয় নিবন্ধিত হয়েছেন। তবে প্রকৃত সংখ্যা এর দ্বিগুন হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here