শাজাহানপুরে এনজিও কর্মীকে মারপিট-শ্লীলতাহানী, সন্ত্রাসীদের হুমকি অব্যহত

0
290
বগুড়া প্রতিনিধি:
বগুড়ার শাজাহানপুরে তুচ্ছ ঘটনায় এক নারী এনজিও কর্মীকে মারপিট ও শ্লীলতাহানীর অভিযোগ উঠেছে একজন দোকানীর বিরুদ্ধে।
বুধবার রাত ৮টার দিকে এই মারপিটের ঘটনা ঘটে।
অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার কামাড়পাড়া গ্রামের আব্দুর রহমান এবং তার স্ত্রী তানিয়া বেগম দুজনই বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থায় (এনজিও) চাকুরী করেন।
গতকাল বুধবার রাত ৮টার দিকে প্রতিবেশী আবু সাইদের স্ত্রীর এবং মায়ের সাথে কথাকাটাকাটি হয় এনজিও কর্মী তানিয়া বেগমের। ঠিক সেই মহুর্তে আবু সাইদসহ দলবল মিলে এনজিও কর্মী তানিয়া বেগমকে বেধরক মারপিট করেন।
পরে অন্যান্য প্রতিবেশিরা এসে এনজিও কর্মী তানিয়াকে উদ্ধার করেন। আহতবস্থায় স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।
ঘটনার রাতে এনজিওকর্মী তানিয়া বেগম বাদি হয়ে শাজাহানপুর থানার লিখিত অভিযোগ দেন।
এনজিও কর্মী তানিয়া বেগম বলেন, গত দুই বছর পূর্বে বাড়ি নির্মানের সময় আবু সাইদ থেকে সিমেন্ট ক্রয় না করায় আমার উপর রেগে ছিল। তারই জের হিসেবে বেধরক পিটিয়েছে এবং শ্লীলতাহানী ঘটিয়েছে আবুসাইদসহ তার দলবল।
তিনি আরও অভিযোগ করেন, থানা পুলিশের নিকট বিচার চাওয়ায় আমার পিছনে সন্ত্রাসী লেলিয়ে দিয়েছে আবু সাইদ। বাড়ির সামনে এসে ওইসব সন্ত্রাসীরা অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেই চলছে। এর আগেও আমার ননদ এবং শাশুরীকে মারপিটে করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমার এবং আমার পরিবারের সকল সদস্যরা নিরাপত্তা হীনতায় রয়েছি ।
এ বিষয়ে দোকানী আবু সাইদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার স্ত্রী এবং আমার মাকে মারপিট করায় আমি ক্ষিপ্ত হয়ে গালমন্দ করেছি। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছে মাত্র।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মেহেদি বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় পরিবারের মধ্যে বিরোধ শুরু হয়েছে। উভয় পরিবারে মধ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনতে শালিসি বৈঠকের মাধ্যমে মিমাংশা করে দেয়ার চেষ্টা চলছে।
এনজিও কর্মী তানিয়া কেগমের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল সরেজমিন পরিদর্শন করেন শাজাহানপুর থানার এএসআই ফারুক আহম্মেদ। তিনি দৃষ্টি২৪ ডটকমকে বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় এই বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। তবে পরবর্তিতে এমন ঘটনা যেন না ঘটে এজন্য প্রয়োজনে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here