শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি 

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীর স্বজন ও কর্মীদের উপর হামলা ও মারপিটের অভিযোগ উঠেছে পরাজিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে।

এঘটনায় উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান শনিবার বিকেলে শাজাহানপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত শুক্রবার (৭ জানুয়ারী) রাত সোয়া ৭টার দিকে তার গ্রামের বাড়িতে ধারালো অস্ত্রস্বস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে গিয়ে হামলা চালিয়েছে তার প্রতিদ্বন্দ্বী পরাজিত প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন। এসময় সাজ্জাদের সহযোগী সন্ত্রাসী বামুনীয়া চাঁদবাড়িয়া গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে মানিক হোসেন (২৩) রাম দা দিয়ে তার ছোট ভাই মোঃ সেলিম রানা টিপুর (২৭) মাথা লক্ষ্য করে কোপ মারে। তখন টিপু কৌশলে দৌড়ে বাড়ির ভিতর প্রবেশ করে। এছাড়া তার চাচা আনসার আলীকে (৬০) সন্ত্রাসীরা এলোপাথারী মারপিট করে। এঘটনায় শুক্রবার রাতেই থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান তার লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, নির্বাচনের সময় থেকেই সাজ্জাদ হোসেন বিভিন্ন ধরনের বিরোধীতা, হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিলেন। নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর থেকে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এরই জের ধরে কর্মীদের উপর হামলা, মারপিট শুরু করেছে।

তিনি আরো বলেন, গণতান্ত্রিক পন্থায় নির্বাচিত হওয়ার পরও পরাজিত অপশক্তি তাকে বিভিন্ন ভাবে বাধাগ্রস্ত করে যাচ্ছেন। এমতাবস্থায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন তিনি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিদ্বন্দ্বী পরাজিত প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন জানান, অভিযোগ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও ষড়যন্ত্রমূলক। প্রশাসন তদন্ত করে তার সংশ্লীষ্টতার প্রমান পেলে মাথা পেতে নেবেন। অন্যথায় মিথ্যা অপবাদ দেয়ায় তিনিও আইনের আশ্রয় নেবেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here