শাজাহানপুরে রাস্তায় বেড়া দেয়াকে কেন্দ্র করে কৃষককে মারপিট

0
79

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার চকচোপীনগর গ্রামের পায়ে চলার রাস্তায় বেড়া দেয়াকে কেন্দ্র করে খোরশেদ আলম (৩৫) নামে এক কৃষককে কোদালের কোপ মেরে গুরুতর আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

খোরশেদ আলম উপজেলার চকচোপীনগর গ্রামের মোজাহার আলীর ছেলে। গুরুতর আহত হয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে চিকিৎসাধিন রয়েছেন খোরশেদ আলম।

্এঘটনায় আহত খোরশেদ আলমের মামা আব্দুল হাদী বাদী হয়ে শাজাহানপুর থানায় দুই জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

শনিবার দুুপুরে থানার এসআই ওবায়দুল আল মামুন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আব্দুল হাদী জানান, চকচোপীনগর গ্রামে তার ভাগিনা খোরশেদ আলমের বাড়ির পাশ দিয়ে পায়ে চলার পুরাতন রাস্তা দিয়ে পাড়ার লোকজন যাতায়াত করে। গত ৫-৬ মাস আগে প্রতিবেশী তছলিম উদ্দীনের দুই ছেলে আতিকুর রহমান (৩৬) ও তারিকুল ইসলাম (৩৪) ওই রাস্তায় বেড়া দিয়ে যাতায়াত বন্ধ করে দেয়। এনিয়ে গ্রাম্য ভাবে বেশ কয়েক বার বৈঠক বসেই কোন কাজ হয়নি। এমতাবস্থায় তার ভাগিনা খোরশেদ আলম গ্রামের লোকজনের যাতায়াতের সুবিধার্থে গত শুক্রবার বিকেলে রাস্তার বেড়া অপসারন করলে আতিক ও তারিক দুই ভাই কোদাল ও লাঠিসোটা নিয়ে এসে অতর্কিত ভাবে হামলা চালায়। এতে খোরশেদ আলমের বাম বুকে ও হাতে কোদালের আঘাতে গুরুতর আহত হয়। বর্তমানে খোরশেদ আলম শজিমেক হাসপাতালে আশংকাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধিন রয়েছেন।

তরিকুল ইসলাম জানান, খোরশেদকে মারা হয়নি। বেড়ার আঘাতে তার হাত কেটে গেছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সামছুর রহমান দুলু জানান, ওই রাস্তা নিয়ে একাধিকবার শালিশ বৈঠক হয়েছে। থানা পুলিশ, ইউপি চেয়ারম্যান সহ বৈঠকে বসেই তছলিম ও তার ছেলেরা মানেনি।

থানার এসআই ওবায়দুল আল মামুন জানান, রাস্তায় বেড়া দেয়াকে কেন্দ্র করে মারপিটের ঘটন ঘটেছে। তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here