নজিস্ব প্রতবিদেক:
একই বাসায় থাকতনে শারমনি নাহার (২৬) ও এক কলজে ছাত্ররে পরবিার। শারমনি তার সাত বছররে শশিু সন্তান ও স্বামীসহ থাকতনে নচিতলায়। আর ওই কলজে ছাত্ররে পরবিার থাকতো বাসার তৃতীয় তলায়। কলজেছাত্র প্রায়ই শারমনি নাহারকে উত্ত্যক্ত করতনে। তার হাত থকেে বাঁচার জন্য বাসা বদল করে তারা নতুন ঠকিানায় এসছেলিনে।

শনবিার সইে বাসায় গয়িে কলজেছাত্র শারমনি নাহারকে কুপয়িে জখম করছে।ে মাকে বাঁচাতে এলে শশিুটকিওে একইভাবে কুপয়িে জখম করা হয়ছে।ে তাদরে রাজশাহী মডেক্যিাল কলজে (রামকে) হাসপাতালে র্ভতি করা হয়ছে।ে

হামলাকারী কলজেছাত্ররে নাম রনি আহাম্মদে (২৩)। তনিি রাজশাহী নগরীর র্কোট কলজেরে সম্মান তৃতীয় র্বষরে ছাত্র। তার বাবার নাম মকবুল হোসনে। বাড়ি সরিাজগঞ্জ জলোয়। বাসাটি রাজশাহী নগরীর কাশয়িাডাঙ্গা থানা এলাকায়। এই থানাতইে উপ-পরর্দিশক (এসআই) পদে চাকরি করনে রনি আহমদেরে খালাতো বোন মৌসুমী বগেম। রনরি ভাবীও পুলশিে চাকরি করনে।

শারমনি নাহাররে স্বামী রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজলোর প্রমেতলী বালকিা উচ্চ বদ্যিালয়রে সহকারী শক্ষিক। তারা এতদনি নগরীর র্কোট কলজেপাড়া এলাকায় চারতলা একটি বাসায় ভাড়া থাকতনে। রনরি উত্যাক্তরে কারণে শুক্রবারই তারা বাসা বদল করছেনে। এতে ক্ষপ্তি হয়ইে হামলা করছেে রন।ি

রজোউল করমি জানান, একই বাসায় থাকার সুবাদে কলজেছাত্ররে সঙ্গে তাদরে দখো-সাক্ষাৎ হতো। এই সুযোগে রনি আহমদে প্রায়ই তার স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত করতনে। এই ঝামলোর জন্য তারা বাসা পরর্বিতন করার সদ্ধিান্ত ননে। একদনি আগইে তারা র্কোট কলজেপাড়ার ওই বাসা ছড়েে রায়পাড়া এলাকায় নতুন একটি বাসায় উঠছেনে। নতুন বাসার ঠকিানা জোগাড় করে রনি আহমদে শনবিার সকাল সাড়ে দশটার দকিে বাসায় এসে এ হামলা চালায়।

রজোউল করমি আরও জানান, তনিি বাসার পাশইে মোড়ে চা পান করছলিনে। এরইমধ্যে খবর পান তার বাসায় হামলা হয়ছে।ে তনিি ছুটে গয়িে দখেনে, ধারালো একটি অস্ত্র দয়িে রনি তার স্ত্রী-সন্তানকে কোপাচ্ছ।ে তনিি রক্তাক্ত স্ত্রী-সন্তানকে উদ্ধার করতে শুরু করলে এই সুযোগে রনি পালয়িে যায়।

এরপর তার স্ত্রী এবং সন্তানকে রাজশাহী মডেকিলে কলজে হাসপাতালে নয়িে র্ভতি করনে। তারা এখন হাসপাতালরে ৩০ নম্বর ওর্য়াডে চকিৎিসাধীন রয়ছেনে। সারাদনি তার স্ত্রীর জ্ঞান ছলি না। সন্ধ্যার একটু আগে তার জ্ঞান ফরিে এসছে।ে কন্তিু তনিি এখনো পরষ্কিার করে কথা বলতে পাচ্ছনে না। তাদরে সারা গায়ে আঘাতরে চহ্নি রয়ছে।ে আর মাথায় রয়ছেে গুরুতর জখম।

হাসপাতলে গয়িে দখো যায়, শারমনি এবং তার সন্ত্রান পাশাপাশি দুটি বডেে শুয়।ে মায়রে মতো ছলেওে নর্বিকিার পড়ে রয়ছে।ে সওে কথা বলতে পারছে না।

নগরীর কাশয়িাডাঙ্গা থানার পুলশি পরর্দিশক (তদন্ত) মশউির রহমান জানান, এই ঘটনায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছ।ে মামলা হলে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নওেয়া হব।ে তনিি স্বীকার করনে হামলাকারী রনি আহমদেরে খালাতো বোন মৌসুমী বগেম এ থানাতইে এসআই পদে চাকরি করনে। কন্তিু আইন নজি গততিে চলব।ে কউেই মামলা প্রভাবতি করতে পারবনে না। হামলাকারী বখাটকেে আটকরে চষ্টো চলছে বলওে জানান পুলশিরে এই র্কমর্কতা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here